বডি ফিটনেস ঠিক রাখার উপায় সম্পর্কিত গুরুত্বপূর্ণ টিপস

বয়স বাড়ার সাথে সাথে শারীরিক ফিটনেস ঠিক থাকে না। সেই যৌবনকালের সুন্দর শারীরিক ফিটনেস বয়স বাড়লে বিশ্রী ফিটনেসে পরিণত হয়। কিন্তু কিছু নিয়ম মেনে চললে দীর্ঘ সময় পর্যন্ত শারীরিক ফিটনেস ঠিক রাখা যায়। সেই সাথে যৌবনকালের ফিটনেস দীর্ঘ দিন পর্যন্ত বজায় থাকে। এমন কি করা উচিত বডি ফিটনেস ঠিক রাখতে! চলুন আজকে জেনে নিই বডি ফিটনেস ঠিক রাখার উপায় সম্পর্কিত সেই কার্যকর টিপসগুলো সম্পর্কে।

আপনারা যদি প্রতিদিনের ব্যস্ততার মাঝেও কিছু নিয়ম অনুসরণ করেন তাহলে বডি ফিটনেস ঠিক রাখতে পারবেন। অন্যতায় কখনো বডি ফিটনেস ঠিক রাখতে পারবেন না। বডি ফিটনেস ঠিক রাখতে আপনাদের যা যা করা প্রয়োজন হবে তা মূল আর্টিকেলে থাকছে। 


বডি ফিটনেস ঠিক রাখার উপায়


বয়স বাড়ার সাথে সাথে এবং অধিক কর্ম ব্যস্ততার কারণে আমরা নিয়মিত ব্যায়াম করতে ভুলে যায়। এছাড়া আমরা নিয়মিত ভেজালে ভরা খাবার বেশি পরিমাণে খেয়ে থাকি। যা আমাদের শারীরিক ফিটনেস ঠিক রাখতে না পারার অন্যতম কারণ। বডি ফিটনেস ঠিক রাখতে হলে আমাদেরকে নিয়মিত অবশ্যই ব্যায়াম করতে হবে এবং সেই সাথে ভেজাল খাবার বাদ দিয়ে ফ্রেস খাবার খেতে হবে।


আমরা যদি ব্যায়াম এবং খাবার তালিকা ঠিক রেখে চলি তাহলে বডি ফিটনেস কখনো নষ্ট হবে না। যা দীর্ঘ সময় পর্যন্ত আমাদের শরীরের ফিটনেস ঠিক থাকবে। বডি ফিটনেস ঠিক রাখতে যে সমস্ত ব্যায়াম এবং খাবার খাওয়া উচিত তা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করি।


বডি ফিটনেস ঠিক রাখতে ব্যায়াম


সাধারণত বডি ফিটনেস ঠিক রাখার জন্য অনেকগুলো ব্যায়াম রয়েছে। এছাড়া যাদের পর্যাপ্ত সময় রয়েছে তারা নিয়মিত জিমে যেতে পারেন। জিমে গেলে শরীর ফিটনেস ঠিক থাকে। কিন্তু যাদের জিমে যাওয়ার মত পর্যাপ্ত সময় কিংবা ব্যবস্তা নেই তারা চাইলে বাড়িতে থেকেই কিছু ব্যায়ামের মাধ্যমে বডি ফিটনেস ঠিক রাখতে পারেন। বাড়িতে থেকে যে ব্যায়ামগুলো করা যায় তার মধ্যে জগিং, স্পট রানিং, পুশ আপ, চিন আপ ইত্যাদি ব্যায়াম করা যায়।


নিয়মিত সকালে অথবা সন্ধ্যায় নিয়মিত ব্যায়াম করলে শারীরিক ফিটনেস ঠিক থাকে। এছাড়া ইয়োগা বা যোগ ব্যায়াম করার মাধ্যমেও বডি ফিটনেস ঠিক রাখা সম্ভব। বর্তমান সময়ে যোগ ব্যায়াম খুবি জনপ্রিয়। যোগ ব্যায়াম শুধু শরীর ফিট রাখতে সাহায্য করে না এর পাশাপাশি মানসিক চিন্তা থেকে মুক্তি, অনিদ্রাজনিত সমস্যা ইত্যাদি দূর করে।


বডি ফিটনেস ঠিক রাখতে ফ্রেস খাবার খাওয়া


বডি ফিসনেস ঠিক না থাকার অন্যতম কারণ হচ্ছে ভেজাল জনিত খাবার খাওয়া। আমরা সাধারণত নানা ধরনের ভেজাল খাবার নিয়মিত খেয়ে থাকি। এসব ভেজাল খাবার খাওয়ার কারণে শরীরের ওজন বেড়ে যায়, যা শরীরের ফিটনেস নষ্ট হয়ে যায়। এছাড়া নিয়মিত প্রচুর পরিমাণে চর্বি জাতীয় খাবার খেলে শরীরের ওজন বেড়ে যাওয়াতে ফিটনেস ঠিক থাকে না।


চর্বি ও ভেজাল খাবার বাদ দিয়ে নিয়মিত প্রোটিন জাতীয় খাবার খেতে হবে। এছাড়া নিয়মিত ব্যায়াম করলে প্রোটিন জাতীয় খাবার খাওয়া উচিত। প্রোটিন জাতীয় খাবার শরীরের ফিটনেস ধরে রাখতে সাহায্য করে। এছাড়া নিয়মিত ফ্রেস খাবার খেতে হবে। কখনো অতিরিক্ত খাবার খাওয়া যাবে না। অতিরিক্ত খাবার খেলে শরীরের ওজন অস্বাভাবিক হারে বেড়ে যায়। তাই অতিরিক্ত খাবার না খেয়ে নিয়ম মেনে পরিমাণ মত খাবার খাওয়া উচিত। 


Also Read:


প্রোটিন জাতীয় খাবারের মধ্যে ডিম, দুধ, ডাল, কাঠ বাদাম, কাজু বাদাম, সিদ্ধ আলু ইত্যাদি খাওয়া যেতে পারে। এছাড়া কলা, আপেল, ড্রাগন ফল ইত্যাদি টাটকা জাতীয় ফল খেতে হবে।


সর্বশেষ কথাঃ বডি ফিটনেস ঠিক রাখার উপায় হিসেবে যে টিপসগুলো শেয়ার করা হয়েছে সেগুলো যদি আপনারা সঠিক নিয়ম মেনে অনুসরণ করেন তাহলে দীর্ঘ দিন পর্যন্ত বডি ফিটনেস ঠিক রাখতে পারবেন। এছাড়া বডি ফিটনেস নিয়ে আমাদের অনেকগুলো আর্টিকেল রয়েছে সেগুলো অনুসরণ করলে বডি ফিটনেস ঠিক রাখতে সহায্য করবে। এ ধরনের গুরুত্বপূর্ণ আর্টিকেল নিয়মিত পেতে আমাদের সাথেই থাকুন।

Previous Post Next Post