বডি বানানোর পাউডার একদম সহজ উপায়ে নিজেই তৈরি করুন

 সাধারণত শরীরের বডি বানানোর জন্য তুলনা মূলক পরিশ্রম করতে হয়। নিয়মিত ব্যায়াম করতে হয় এবং সেই সাথে প্রোটিন যুক্ত খাবার খেতে হয়। তার মধ্যে প্রোটিন পাউডার অন্যতম। মূলত বডি বানানোর পাউডার হচ্ছে প্রোটিন পাউডার। যে পাউডার সুন্দর বডি বিল্ডিংয়ের জন্য খাওয়া প্রয়োজন। তাই যারা বডি বিল্ডিং ব্যায়াম করে তারা কম বেশি এই পাউডার খেয়ে থাকে। বডি বিল্ডিংয়ের এই প্রোটিন পাউডার অনেকটা উচ্চ মূল্যের হয়ে থাকে। 

যা প্রতিনিয়ত এই পাউডার ক্রয় করতে অনেক অর্থের প্রয়োজন হয়। এত উচ্চ মূল্যের প্রোটিন পাউডার ক্রয় না করে নিজেই ঘরোয়া পদ্ধতিতে এই পাউডার তৈরি করতে পারেন। এছাড়া ঘরোয়া পদ্ধতিতে তৈরি করা প্রোটিন পাউডার বাজার থেকে ক্রয় করা প্রোটিন পাউডারের মতই বেশ কার্যকরী।


বডি বানানোর পাউডার


শুধু নিয়মিত বডি বিল্ডিং ব্যায়াম করলে বডি বানানো যায় না। তার জন্য প্রয়োজন প্রোটিন যুক্ত ভালো মানের খাবার খাওয়া। যার মধ্যে বডি বানানোর পাউডার বেশ কার্যকরী ভূমিকা পালন করে। বডি বানানোর এই প্রোটিন পাউডার বডি বিল্ডিং ব্যায়ামের পর নিয়মিত খেলে শরীরের মাসল যুক্ত মাংসপেশি গঠন করতে দ্রুত সাহায্য করে।


বডি বিল্ডিং তৈরিতে দ্রুত কার্যকারীতা পেতে হলে অবশ্যই এই বডি বানানোর প্রোটিন পাউডার খেতে হবে। বডি বিল্ডিংয়ের প্রোটিন পাউডার উচ্চ মূল্য হওয়ায় অনেকে কিনতে কম আগ্রহ প্রকাশ করে। তাই বেশি অর্থ দিয়ে এই প্রোটিন পাউডার ক্রয় না করে কিভাবে নিজেই ঘরোয়া পদ্ধতিতে তৈরি করা যায় তা নিয়ে বিস্তারিত জানবো।


ঘরোয়া ভাবে বডি বানানোর পাউডার তৈরি পদ্ধতি


খুব সহজভাবে নিজেই ঘরোয়া পদ্ধতিতে এই বডি বানানোর প্রোটিন পাউডার তৈরি করা যায়। তবে এর জন্য কিছু জিনিসপত্রের প্রয়োজন হবে। সর্বপ্রথমে এই জিনিসপত্রগুলো জোগাড় করতে হবে। তারপর প্রোটিন পাউডার তৈরি করতে হবে। 


যা যা প্রয়োজন হবে :

  • কাঁচা বাদাম (১০০ গ্রাম)
  • সয়াবিন বীজ (১০০ গ্রাম)
  • ভাজা ছোলা (১০০ গ্রাম)
  • আখরোট (১০০ গ্রাম)

পাউডার তৈরি পদ্ধতি :

বডি বানানোর প্রোটিন পাউডার তৈরির কাঁচামাল জোগাড় করার পর প্রথমে ভালো করে রোদে শুকাতে হবে। অথবা চুলায় একটা পাত্রে নিয়ে ভালো করে ভাজা করতে হবে। এরপর শুকনো বাদাম, সয়াবিন বীজ, ভাজা ছোলা ও আখরোট একসাথে একটা মিক্সার গ্রাইন্ডার মেশিনে নিয়ে মিক্সিং করতে হবে। 


মিক্সার গ্রাইন্ডার মেশিনে একদম পাউডার করতে হবে। বেশ তৈরি হয়ে গেলো বডি বানানোর প্রোটিন পাউডার।


তৈরি করা প্রোটিন পাউডার খাওয়ার নিয়ম


বডি বানানোর প্রোটিন পাউডার তৈরি করার পর আপনাকে তরল দুধের সাথে মিশিয়ে খেতে হবে। প্রতিদিন বডি বিল্ডিং ব্যায়াম করার ১০ মিনিট পর ১ গ্লাস তরল দুধের সাথে ৩ চামচ তৈরি করা প্রোটিন পাউডার মিশিয়ে খেতে হবে। 


এছাড়া প্রোটিন পাউডারের কার্যকারীতা দ্রুত পেতে হলে প্রতিদিন সকালে ঘুম থেকে উঠার পর ১ গ্লাস তরল দুধের সাথে একিভাবে মিশিয়ে খেতে হবে। 


Also Read:

বডি বানানোর প্রোটিন পাউডার কোথায় পাবেন?


বডি বানানোর প্রোটিন পাউডার আপনারা সহজে বাজার থেকে কিনে নিতে পারেন। অথবা অনলাইন থেকে কিনার জন্য অর্ডার করতে পারেন। অনলাইন থেকে কিনার জন্য অনেক অনলাইন মার্কেটপ্লেস রয়েছে। যেমন: ডারাজ, আজকের ডিল ইত্যাদি। 


এসব অনলাইন মার্কেটপ্লেস থেকে ঘরে বসে খুব সহজে বডি বানানোর প্রোটিন পাউডার যেকোন সময় অর্ডার করতে পারেন। আর যারা অতিরিক্ত অর্থ খরচ করে কিনতে না চান তারা নিজেরাই ঘরোয়া পদ্ধতিতে বডি বানানোর প্রোটিন পাউডার তৈরি করে খেতে পারেন।


সর্বশেষ কথাঃ আপনারা নিশ্চই ঘরোয়া পদ্ধতিতে কিভাবে বডি বানানোর পাউডার তৈরি করা যায় তা জানতে পেরেছেন। এছাড়া বাজার কিংবা অনলাইন মার্কেটপ্লেস থেকে বডি বানানোর প্রোটিন পাউডার কিভাবে কিনতে হয় তা নিয়ে বিস্তারিত জানতে পেরেছেন। আশা করছি, আর্টিকেলটি আপনাদের অনেক উপকারে এসেছে। এ ধরনের গুরুত্বপূর্ণ আর্টিকেল নিয়মিত পেতে সঙ্গে থাকুন।

Previous Post Next Post