পুশ আপ ব্যায়ামের উপকারিতা ও পুশ আপ ব্যায়াম করার নিয়মাবলী

শরীরকে ঠিক রাখতে পুশ আপ ব্যায়ামের উপকারিতা অতুলনীয়। যারা শরীরের মাংসপেশি শক্তিশালী করতে চান এবং শরীরকে ঠিক রাখতে চান তারা নিয়মিত পুশ আপ ব্যায়াম করতে পারেন। কিন্তু অনেকে পুশ আপ ব্যায়াম কিভাবে করে এবং পুশ আপ ব্যায়ামের প্রচুর উপকারিতা সম্পর্কে জানেন না। তাই আজকের এই আর্টিকেলে পুশ আপ ব্যায়ামের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করবো। 

যারা পুশ আপ ব্যায়ামের এ সকল বিষয় নিয়ে বিস্তারিত জানতে আগ্রহী তারা আর্টিকেলের শেষ অবধি পর্যন্ত সঙ্গে থাকুন। আর বেশি কথা না বাড়িয়ে সরাসরি মূল বিষয় নিয়ে আলোচনা করা যাক।


পুশ আপ ব্যায়াম


দৈনন্দিন জীবনে শরীরকে ঠিক রাখতে এবং সুস্বাস্থ্যের অধিকারী হতে হলে ব্যায়াম করার বিকল্প নেই। মূলত শরীর ঠিক রাখতে বিভিন্ন ধরনের ব্যায়াম রয়েছে তার মধ্যে পুশ আপ ব্যায়াম অন্যতম। এই পুশ আপ ব্যায়াম নিয়মিত ভাবে করলে শরীরে বিভিন্ন ধরনের উপকারিতা পাওয়া যায়। সেই সাথে শরীর মজবুত এবং শক্তিশালী হয়। 


আর অনেকে রয়েছে যারা সাধারণত বডি বিল্ডার হতে চায়। এই বডি বিল্ডার হওয়ার জন্য পুশ আপ ব্যায়ামের বিকল্প নেই। প্রত্যেক বডি বিল্ডার নিয়মিত এই পুশ আপ ব্যায়াম করে থাকে। তাইতো আপনারা যদি এ ধরনের বডি বিল্ডার হতে চান অবশ্যই পুশ আপ ব্যায়ামটি করতে হবে।


এছাড়া শুধু শরীর ঠিক রাখতে এবং শক্তিশালী মাংসপেশি করতে নিয়মিত এই পুশ আপ ব্যায়ামটি করতে পারেন। পুশ আপ ব্যায়ামটি যেকোন সময় যেকোন জায়গায় করা যায়। তবে সঠিক ফলাফল পেতে হলে প্রতিদিন নির্দিষ্ট সময়ে দৈনিক ১০-২০ বার পুশ আপ ব্যায়ামটি করতে হবে। 


পুশ আপ ব্যায়াম কিভাবে করে?


প্রত্যেক ব্যায়ামের একটি নির্দিষ্ট নিয়ম রয়েছে। এছাড়া ব্যায়াম করে কার্যকরী ফলাফল পেতে হলে অবশ্যই সঠিক ভাবে ব্যায়াম করা জরুরী। ঠিক তেমনি পুশ আপ ব্যায়ামের একটি নির্দিষ্ট নিয়ম রয়েছে যা অনেকে পুশ আপ ব্যায়াম কিভাবে করে তা জানে না। পুশ আপ ব্যায়ামের সঠিক নিয়ম নিচে দেয়া হল -

  1. সোল্ডারের একটু বাইরে ২ হাত একদম সোজা করে পজিশন করতে হবে। অবশ্যই ২ হাতের পাতা ফ্লোরের সাথে সমান্তরাল থাকবে।
  2. বডি বা শরীর সোজা করে পজিশন করতে হবে। কখনো বডিকে বাকা করে উপরে বা নিচে পজিশন করবেন না।
  3. এরপর ২ পা অল্প পরিমাণে ফাঁক রেখে পজিশন করতে হবে। কখনো ২ পা একসাথে জড়ো করবেন না এবং অতিরিক্ত পরিমাণ ফাঁক রাখবেন না।
  4. সর্বশেষ সব কিছু ঠিক রেখে শরীরকে উপরে এবং নিচে করে পুশ আপ ব্যায়াম করতে হবে।

এ বিষয়ে আরো সঠিক ধারণা নিতে নিচের দেওয়া ভিডিওটি দেখতে পারেন। ভিডিওটি দেখার পরে পুশ আপ ব্যায়াম করার নিয়ম আপনাদের কাছে সম্পূর্ণ পরিষ্কার হয়ে যাবে। 


আরো পড়ুনঃ চিকন থেকে বডি বিল্ডার হওয়ার দ্রুত কার্যকরী উপায়


পুশ আপ ব্যায়ামের উপকারিতা


আমরা একটু আগে পুশ আপ ব্যায়াম কি এবং পুশ আপ ব্যায়াম কিভাবে করতে হয় সে বিষয়ে বিস্তারিত জেনেছি। এ পর্যায়ে আমরা জেনে নিবো পুশ আপ ব্যায়ামের উপকারিতা সম্পর্কে। সাধারণত পুশ আপ ব্যায়ামের অনেকগুলো উপকারিতা রয়েছে নিচে তা দেয়া হল -

  • পুশ আপ ব্যায়াম করলে শরীরের শক্তি বৃদ্ধি পায়।
  • অতিরিক্ত ক্যালোরি ঝরে পড়ে।
  • মানসিক শক্তি দৃঢ় হয়।
  • আত্ম বিশ্বাসের পরিমাণ বাড়ে।
  • উপর থেকে পা পর্যন্ত শরীরের প্রত্যেকটি মাংসপেশি শক্তিশালী হয়ে উঠে।
  • রক্ত চলাচল ঠিক রাখতে সাহায্য করে।
  • শরীরের ভারসাম্য বজায় থাকে।
  • মাংসপেশির ঘনত্ব ঠিক থাকে।
  • হৃদস্পন্দন স্বাভারিক রাখতে সাহায্য করে।

সর্বশেষ কথাঃ শরীরকে ঠিক রাখতে এবং শক্তিশালী রাখতে অবশ্যই নিয়মিতভাবে পুশ আপ ব্যায়াম করুন। আশা করছি, পুশ আপ ব্যায়ামের উপকারিতা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পেরেছেন এবং পুশ আপ ব্যায়ামের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে অবগত হয়েছেন। এ ধরনের গুরুত্বপূর্ণ আর্টিকেল নিয়মিত পড়তে আমাদের সাথেই থাকুন এবং আপনাদের প্রিয়জনের সাথে আমাদের এই আর্টিকেলটি শেয়ার করুন। 
Previous Post Next Post